sonargaonpost.com
ঢাকাTuesday , 12 September 2023
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ইসলামিক
  5. এক্সক্লুসিভ
  6. খেলা-ধূলা
  7. চাকুরি
  8. ট্যুরিজম
  9. দূর্ঘটনা
  10. পড়াশোনা
  11. প্রবাস
  12. ফিচার
  13. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  14. বিনোদন
  15. রাজনীতি
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হার্ট, কিডনি ও লিভার ভালো রাখবে আমলকীর জুস

Editor: মোহাম্মদ শাহাদাৎ হোসেন সুমন
admin
September 12, 2023 11:35 am
Link Copied!

আমলকীর রসের হাজার গুণ। এমনকি এই পানীয় হার্ট, কিডনি, লিভারসহ একাধিক অঙ্গের জন্য উপকারী। তাই সুস্থ থাকতে এ পানীয় নিয়মিত পান করা জরুরি।

আয়ুর্বেদ শাস্ত্র মতে, ফলের রাজা আমলকী। তাই প্রতিদিন এ ফল খেলে একাধিক রোগ এড়িয়ে চলা সম্ভব। সুতরাং সুস্থ-সবল থাকার ইচ্ছা থাকলে যত দ্রুত সম্ভব আমলকীর সঙ্গে বন্ধুত্ব করা উচিত।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, এই ফলে একাধিক উপকারী ভিটামিন, খনিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। তাই দেহে পুষ্টির ঘাটতি মেটাতে এ ফলের জুড়ি মেলা ভার।  

বাড়বে ইমিউনিটি​

আমাদের আশপাশে রয়েছে অসংখ্য ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া। একটু সুযোগ পেলেই এসব রোগ জীবাণু শরীরের উপর হামলা চালাতে পারে। তাই যেকোনোভাবে ইমিউনিটি বাড়িয়ে রাখাটা জরুরি। আর এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে আমলকীর রস।

আমলকীর জুসে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সি যা কিনা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। তাই একাধিক সংক্রামক রোগের ফাঁদ এড়াতে এই পানীয়ে চুমুক দিতে ভুলবেন না।

লিভার থাকবে সুস্থ 

শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হল লিভার। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের ভুল খাদ্যাভ্যাসের দরুন এই অঙ্গের গুরুতর ক্ষতি হচ্ছে। এমনকি পিছু নিচ্ছে ফ্যাটি লিভার, লিভার সিরোসিস এবং লিভার ফাইব্রোসিসের মতো জটিল অসুখ। তাই সুস্থ থাকার ইচ্ছে থাকলে লিভারের হাল ফেরাতে হবে। আর এই কাজে আপনার সহযোগী যোদ্ধা হতে পারে আমলকীর রস। কারণ এই ফলে এমন কিছু অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মজুত রয়েছে যা লিভার ফাংশন বাড়তে পারে।

চাঙা হবে হজম ক্ষমতা

নিয়মিত গ্যাস, অ্যাসিডিটির মতো পেটের সমস্যায় যারা ভোগেন তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি ওষুধ হতে পারে আমলকীর জুস। আমলকীতে এমন কিছু অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা পাকস্থলীর আলসার অসুখটিকে প্রতিরোধ করতে পারে। এমনকি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা মেটানোর কাজেও এই পানীয়ের জুড়ি মেলা ভার।

হার্টের বন্ধু আমলকীর জুস​ 

নিয়মিত আমলকীর জুস পান করলে রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমবে এবং ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়বে। ফলে সুস্থ থাকবে হার্ট। এমনকি এড়ানো যাবে হার্ট অ্যাটাকের মতো মারণ রোগের ফাঁদ।

শুধু তাই নয়, হৃৎপিণ্ডের প্রদাহ প্রশমিত করার কাজেও এ জুসের জুড়ি মেলা মুশকিল। তাই তো হার্টের রোগে আক্রান্ত রোগী এবং যাদের বাড়িতে এই রোগের ইতিহাস রয়েছে, এই দুই দলকেই নিয়মিত আমলকীর জুস পান করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা।

ভালো থাকবে কিডনি

ডায়াবেটিস, হাই প্রেশারের মতো রোগের কারসাজিতে কিডনির বারোটা বাজতে সময় লাগবে না। তবে ভালো খবর হলো, নিয়মিত আমলার জুস খেলে কিডনি সুস্থ-সবল থাকবে। এমনকি এই অঙ্গের অক্সিডেটিভ স্ট্রেস দূর হতেও সময় লাগবে না। তাই কিডনির অসুখের ফাঁদ এড়াতে আমলকীর রসের সঙ্গে বন্ধুত্ব করে নিন।